বাগেরহাটে রাজনৈতিক সৌহার্দ্য আরও এগিয়ে নিতে রাজনীতিবিদ, যুব ও নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিদের অঙ্গীকার

26
প্রেস বিজ্ঞপ্তি :
বাগেরহাটে রাজনৈতিক সৌহার্দ্য আরও এগিয়ে নিতে অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন রাজনীতিবিদ, যুব ও নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা। মঙ্গলবার শহরের ধানসিঁড়ি রেস্তরায় অনুষ্ঠিত ‘রাজনৈতিক সৌহার্দ্যের সংস্কৃতিকে এগিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা’ শীর্ষক কর্মশালা থেকে এ অঙ্গীকার ব্যক্ত করা হয়। দেশের প্রধান তিনটি রাজনৈতিক দলের সদস্যদের নিয়ে গঠিত মাল্টিপার্টি অ্যাডভোকেসি ফোরাম (এমএএফ) -এর উদ্যোগে এ কর্মশালার আয়োজন করা হয়।
আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টির নেতৃবৃন্দের পাশাপাশি এতে অংশ নেন জেলার বিভিন্ন যুব সংগঠনের প্রতিনিধিরাও। কর্মশালায় রাজনৈতিক সৌহার্দ্যের ধারণা এবং সৌহার্দ্যপূর্ণ রাজনীতি চর্চার গুরুত্ব ও কৌশল সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা হয় এবং আগামী দিনে বাগেরহাটে  রাজনৈতিক সৌহার্দ্যের সংস্কৃতিকে আরো শক্তিশালী করার লক্ষ্যে একটি কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়।
এফ সি ডিও-এর অর্থায়নে ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনাল বাস্তবায়িত বাংলাদেশ স্ট্রেনদেনিং পলিটিক্যাল অ্যাকাউন্টাবিলিটি ফর সিটিজেন এমপাওয়ারমেন্ট (বি-স্পেইস) প্রকল্পের সহযোগিতায় এ কর্মশালার আয়োজন করা হয়।
এমএএফ বাগেরহাটের আহব্বায়ক বাগেরহাট সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রিজিয়া পারভিন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মশালার শুরুতে উদ্দেশ্য ও লক্ষ্য উপস্থাপন করে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনাল খুলনা  রিজিওনাল ম্যানেজার রুবাইয়াত হাসান ও কর্মশালা পরিচালনা করেন রিজিওনাল কো-অর্ডিনেটর মোহাম্মদ ইয়াসিন আরাফাত।
কর্মশালায় সমাপনী পর্বে বক্তব্য রাখেন মাল্টিপার্টি এডভোকেসী ফোরাম বাগেরহাটের আহব্বায়ক বাগেরহাট সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রিজিয়া পারভিন।
এই কর্মশালা বাস্তবায়নে সার্বিক সহযোগিতা করেন ডেমোক্রেসী ইন্টারন্যাশনাল খুলনা ইলেকটোরাল প্রোগ্রাম এসিস্টেণ্ট সিলমী সাদিয়া।
মাল্টিপার্টি এডভোকেসি ফোরামের সদস্যবৃন্দ ছাড়াও কর্মশালায় বিভিন্ন যুব সংগঠনের প্রতিনিধিরা অংশ নিয়ে রাজনৈতিকদগুলোর কাছে নিজেদের প্রত্যাশা তুলে ধরেন।