ফুলতলা পল্লী মঙ্গল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা স্বপ্নার বিরুদ্ধে অনিয়মের প্রমাণ পেলেও কর্তৃপক্ষ নিরব

202

আবু হামজা বাঁধন।

খুলনার ফুলতলা উপজেলার আলকা পল্লী মঙ্গল সরকারী মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা স্বপ্না খাতুনের বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের প্রমাণ কর্তৃপক্ষ পেলেও এখন পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি বলে জানা যায়। তথ্যমতে, স্বপ্না খাতুনের কোচিং এর শিক্ষার্থীদের স্কুলের পরীক্ষায় অংকে ভুল করলেও স্বপ্না অনৈতিক পন্থায় নাম্বার বাড়িয়ে দিয়ে তার প্রাইভেটের ছাত্র/ছাত্রীদের ৯০ বা ৮০ মার্কস পাইয়ে দেয়। বিষয়টি জানা জানি হয়ে গেলে স্থানীয় পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর তদন্ত করেন ফুলতলা উপজেলা প্রাথমিক সহকারী শিক্ষা  কর্মকর্তা মতিউর রহমান। তবে স্বপ্নার অনিয়মের সকল প্রমাণাদি হাতে পাওয়ার পরেও এখন পর্যন্ত কোন বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি ওই শিক্ষিকার বিরুদ্ধে। ফলে স্থানীয়দের মাঝে চরম ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রমতে জানা যায়, স্বপ্নাকে তাঁর অপরাধের শাস্তি থেকে বাঁচাতে একটি মহল কাজ করছে। তবে ক্ষোদ উপজেলা শিক্ষা অফিসের কতিপয় সদস্য স্বপ্নার বিষয় নিয়ে নিরব রয়েছে বলে তথ্য উঠে এসেছে।

খুলনা বিভাগীয় প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের উপ-পরিচালক মোসলেম উদ্দিন বলেন, বিষয়টি নিয়ে আমি অবগত। তদন্ত রিপোর্ট আসলেই ব্যবস্থা  নেওয়া হবে।